বিকাশ পিন রিসেট করার নিয়ম

চোর-ডাকাত কিংবা ছিনতাইকারীর ভয়ে আজকাল মানুষজন অতিষ্ঠ। আগের দিন শেষ এখন দিন এসেছে নিজকে পাল্টানোর। তাই আর চিন্তা কিসের? এখন আপনারা বিকাশে টাকা রাখতে পারেন নিশ্চিন্তে। বিকাশে কোন রকম ঝামেলা পোহাতে হয় না। বিকাশ একাউন্ট ক্রিয়েট করে টাকা জমানো যায় মোবাইল ফোনে। বিকাশ পিন রিসেট করার নিয়ম

 

 

 

তো ভিউয়াস,আপনারা যারা ইতিপূর্বে বিকাশে টাকা রাখছেন কিংবা রাখবেন শুধু তাদের জন্য আমার এই পোস্টটি। আমি এতো টাকা রাখবো বিকাশে যদি হঠাৎ করে কোনদিন বিকাশ পাসওয়ার্ড ভুলে যাই তা হলে তো সর্বনাশ। হ্যাঁ বন্ধুরা,আপনার মনে এরকম প্রশ্ন জাগা স্বাভাবিক। কারণ, ছিনতাইকারীর ভয়ে টাকা বিকাশে রাখলেন সুরক্ষার জন্য। যদি বিকাশের পাসওয়ার্ড হারিয়ে ফেলে যদি টাকা কে হারিয়ে ফেলি তাহলে লাভ কি হইলো বিকাশে টাকা রেখে।

 

 

 

আরে ভাই লাভ অবশ্যই আছে। বিচলিত হবেন না কারণ,পাসওয়ার্ড ভুলে গেলেও টাকার কোনো ত্রুটি হবে না। পুনরায় পাসওয়ার্ড সেট করে বিকাশে টাকা লেনদেন করতে পারবেন। তাই এর জন্য আমার নিবন্ধনটি স্টেপ বাই স্টেপ পড়েন ইনশাআল্লাহ পাসওয়ার্ডটি পুনরায় সেট-আপ করে নিতে পারবেন।

 

 

 

বিকাশ পিন কি?

কয়েকটি লেটার, সংখ্যা, সাংকেতিক চিহ্ন ইত্যাদির সম্মিলিত রুপ হচ্ছে পিন। বিকাশ পিন কি? এই প্রশ্নের উওরে বলা যায়- বিকাশকে সুরক্ষা রাখার জন্য যে বর্নগুলো ব্যাবহার করা হয় তাই বিকাশ পিন।

 

 

বিকাশ একাউন্ট খোলার সময়ে কঠিন পিন ব্যাবহার করা উত্তম। এতে করে আপনার একাউন্ট অন্যের হাত থেকে সুরক্ষায় থাকবে। আর বিকাশের যেকোন সার্ভিস ব্যাবহার করার ক্ষেত্রে বিকাশ পিন প্রদান করে সেই সার্ভিসে প্রবেশ করা যায়।

 

 

 

বিকাশ পিন কিভাবে লক হয়

আপনার ফোনের বিকাশ তো আপনি ব্যাবহার করবেন। হঠাৎ করে বিকাশ পিন লক হয়ে গেছে এমন অবস্থায় অন্যের ঘারে দোষ দিবেন না। কারণ, এর জন্য দায়ী আপনি,আপনার ফোনের বিকাশের পিন যদি ভুলক্রমে তিনবার চেষ্টা করেন তাহলে আপনা-আপনি ভুল পিনের কারনে লক হয়ে যাবে। আর একটি বিষয় আপনি লক্ষ্য রাখবেন যাতে করে কেউ আপনার দূর্বলতার সুযোগ নিয়ে যেনো টাকা গুলো উত্তোলন করতে না পারে।

 

 

বিকাশ একাউন্ট ব্যাবহারের সকল ক্ষেত্রে পিনের প্রয়োজন হয়ে থাকে যেমনঃ ক্যাশ আউট,মোবাইল রিচার্জ ইত্যাদি। আবার বিকাশ অ্যাপসে প্রবেশ থেকে শুরু করে সবক্ষেত্রেই পিনের প্রয়োজন হয়ে থাকে।

 

 

 

বিকাশ পিন ভুলে গেলে কি করবেন

তো ভিউয়াস, বিকাশ পিন যদি কোনো ক্রমে ভুলে যান তাহলে হতাশ হবেন না। আপনি নিশ্চয়ই অবগত আছেন যে, বাংলাদেশের প্রধান মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদান প্রতিষ্ঠান গুলোর মধ্যে বিকাশ একটি। তেমনি নিরাপত্তার বিষয়ে অনেক সক্রিয় ভাবে কাজ করে যায় বিকাশ প্রতিষ্ঠানটি।

 

পূর্বে বিকাশ পিন হারিয়ে ফেললে বিকাশের হেল্পলাইনের সাহায্য নিতে হতো। আর এখন আপনি নিজেই, কিছু টিপস্ যানা থাকলে হারানো পিন রিসেট করে নিতে পারবেন।

 

 

 

বিকাশ পিন রিসেট করবেন কিভাবে

তো ভিউয়াস আপনি আপনার স্মার্ট ফোনটির মাধ্যমে খুব সহজেই বিকাশ পিন রিসেট করে নিতে পারবেন। এজন্য আপনাকে বিকাশ অ্যাপস কিংবা মোবাইল ব্যাংকিং মেন্যুর মাধ্যমে রিসেট করে নিতে হবে। তো চলুন কিভাবে বিকাশ অ্যাপস কিংবা মোবাইল ব্যাংকিং মেন্যু ব্যাবহার করে বিকাশ পিন রিসেট করবেন।

 

 

কিভাবে মোবাইল ব্যাংকিং মেন্যু বা USSD থেকে বিকাশ পিন রিসেট করবেন।

তো ভিউয়াস আপনাকে ডায়াল প্যাডে *২৪৭# ডায়াল করে মোবাইল ব্যাংকিং মেন্যুর মাধ্যমে বিকাশ পিন রিসেট করতে পারবেন। মোবাইল ব্যাংকিং মেন্যু মাধ্যমে বিকাশ পিন রিসেট করতেঃ-

 

১. প্রথমত আপনার হাতে থাকা ফোনটির ডায়াল প্যাডে *২৪৭# ডায়াল করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য একটু সময় নিয়ে অপেক্ষা করুন।

 

২. এ পর্যায়ে আপনার ফোনে একটি ইন্টারফেস শো করবে এবং সেখানে পর্যায়ক্রমে বিকাশের অপশন গুলো দেখতে পারবেন। পিন রিসেট করতে পর্যায়ক্রমিক নম্বর 9 এ লক্ষ্য দিবেন এবং সেখানে Reset PIN অপশনটি দেখতে পারবেন। এখন আপনি 9 ডায়াল করুন এবং Send অপশনে ক্লিক করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য একটু অপেক্ষা করুন।

বিকাশ পিন রিসেট
৩. এ পর্যায়ে আপনার কাছে চাওয়া হবে এনআইডি/ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসপোর্ট। আপনি বিকাশ একাউন্ট ক্রিয়েট করার সময় যে ডকুমেন্টস ব্যাবহার করছেন সেই নম্বর এনআইডি/ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসপোর্ট লিখে Send অপশনে ক্লিক করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য ধর্য নিয়ে একটু অপেক্ষা করুন।

বিকাশ পিন রিসেট
৪. এ পর্যায়ে আপনার কাছে জন্মসাল জানতে চাইবে তো আপনারা প্রথমে যে জন্ম সাল ব্যাবহার করছিলেন তা এখানে লিখে Send অপশনে ক্লিক করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য আপনাকে একটু অপেক্ষা করতে হবে।

বিকাশ পিন রিসেট
৫. তো ভিউয়াস,

পূর্বের তিন মাসের মধ্যে শেষের দশটি লেনদেন করে থাকলে তা যেকোনো একটি বাচাই করুন।

বিকাশ পিন রিসেট
৬. এ পর্যায়ে আপনি,শেষের দশটি লেনদেনের যেকোনো একটি এমাউন্ট পরিমাণ উল্লেখ করুন এবং Send বাটনে ক্লিক করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য আপনাকে একটু অপেক্ষা করতে হবে।

বিকাশ পিন রিসেট
৭. ধর্য সহকারে এতোক্ষণ পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। প্রদানকৃত উপরোক্ত তথ্য গুলো সঠিক হলে ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে একটি অস্থায়ী পিন প্রদান করা হবে।

বিকাশ পিন রিসেট
৮. এ পর্যায়ে আপনি ডায়াল প্যাডে *২৪৭# পুনরায় লিখে ডায়াল করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য একটু অপেক্ষা করুন।

৯. তো ভিউয়াস, এই পর্যায়ে আপনি My bkash অপশনটি দেখতে পারবেন। 1 লিখে Send অপশনে ক্লিক করুন।

বিকাশ পিন রিসেট
১০. পুনরায় আপনি 1 লিখে Send করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য আপনাকে একটু অপেক্ষা করতে হবে।

বিকাশ পিন রিসেট
১১. আপনাকে ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে যে, পিনটি প্রদান করা হয়েছিল। ‘Old PIN’ লেখা ফাঁকা জায়গায় অস্থায়ী পিনটি লিখুন এবং Send অপশনে ক্লিক করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য অপেক্ষা করুন।

বিকাশ পিন রিসেট
১২. তো ভিউয়াস,এ পর্যায়ে আপনার তৈরিকৃত পিনটি দুইবার প্রদান করুন। তো আপনাকে আনকিউ পিন তৈরি করতে হবে। তা না হলে আপনাকে অনেক প্রবলেম ফেস করতে হবে। পিন যদি সহজ দেন যে কেউ আপনার পিন বুঝে ফেলতে পারবে এবং আপনার বিকাশে থাকা টাকার কোনো সিকিউরিটি থাকবেনা। পরিশেষে টাকার সিকিউরিটির জন্য আনকিউ পিন প্রদান করতে হবে।

বিকাশ পিন রিসেট
১৩. পরিশেষে আপনি দেখতে পারবেন আপনার তৈরিকৃত পিনটি সফলভাবে রিসেট হয়েছে।

তো ভিউয়াস, আপনার হাতে যদি স্মার্ট ফোন থাকে তাহলে বিকাশ অ্যাপস ব্যাবহার করে রিসেট করে নিতে পারেন।
তারজন্য আপনকে অস্থায়ী পিনটি বিকাশ অ্যাপসে প্রদান করতে হবে এবং লগ-ইন করে নিতে হবে। বিকাশ পিন রিসেট করার নিয়ম

বিকাশ অ্যাপসে বিকাশ পিন রিসেট

বিকাশ অ্যাপসে কিভাবে বিকাশ পিন রিসেট করতে হয় তার পুরো প্রক্রিয়াটি এখানে তুলে ধরা হলো। তো ভিউয়াস পোস্টটি স্কিপ না করে আর যদি জানার ইচ্ছা পোষণ করেন তা হলে স্টেপ বাই স্টেপ পড়ুন।
১. প্রথমে আপনাকে প্লে-স্টোর থেকে বিকাশ অ্যাপস ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিতে হবে। তা হলে এখন আপনি বিকাশ অ্যাপসে প্রবেশ করুন।

বিকাশ পিন রিসেট
২. আপনার তো পিন মনে নেই কিংবা হারিয়ে ফেলছেন তা হলে বিচলিত না হয়ে ‘Forget PIN’ অপশনে ক্লিক করুন।

৩. পিনটি রিসেট করার জন্য Reset PIN অপশনে ক্লিক করুন।

৪. এ পর্যায়ে আপনি যে ইন্টারফেসটি দেখতে পারবেন সেখানে “পরবর্তী” লিখাতে ক্লিক করুন।

বিকাশ পিন রিসেট
৫. তো ভিউয়াস, আপনার সিমটি যে কোম্পানির (রবি,এয়ারটেল,বাংলালিংক,গ্রামীন,রবি) তা সিলেক্ট করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য অপেক্ষা করুন।

৬. ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে ওটিপি প্রদান করা হবে। প্রদানকৃত ওটিপি আসার জন্য যদি কোনো পারমেশন চায় তাহলে তা Allow করে দিন।

বিকাশ পিন রিসেট
৭. পরবর্তীতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ওটিপি সাবমিট হয়ে যাবে।

৮. এসএমএসের মাধ্যমে জাননো অস্থায়ী পিনটি প্রদান করুন।

বিকাশ পিন রিসেট

৯. এ পর্যায়ে অস্থায়ী পিনটি দুই বার প্রদান করুন।

বিকাশ পিন রিসেট
১০. এখন আপনার তৈরিকৃত পিনটি দিয়ে লগ-ইন করে দেখুন যে, নতুন পিন রিসেট সফল হয়েছে কিনা?

বিকাশ পিন রিসেট
তো ভিউয়াস উপরোক্ত টিপস্ গুলো ফলো করলে, নিশ্চয়ই আপনি সফল ভাবে পিন রিসেট প্রক্রিয়াটি সমাপ্ত করতে পারবেন।

প্রয়োজনে বিকাশ পিন পরিবর্তন করার নিয়ম

সিকিউরিটি কে মজবুত করার জন্য প্রয়োজন বিকাশ পিন পরিবর্তন করে নিতে হয়ে। প্রয়োজনে বিকাশ পিন পরিবর্তন করতেঃ-
১. আপনার মুঠো ফোনের ডায়াল প্যাডে *২৪৭# ডায়াল করে বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং মেন্যুতে প্রবেশ করুন। পরবর্তী ইন্টারফেইসের জন্য অপেক্ষা করুন।
২. ইন্টারফেসের পর্যায়ক্রমিক 8 নম্বর সিরিয়ালে, My bkash সিলেক্ট করার জন্য 8 লিখে সেন্ড করুন
৩. পরবর্তী ইন্টারফেইস আপনি Change Mobail Menu PIN সিলেক্ট করতে 3 লিখে রিপ্লাই দিন।
৪. আপনার কাছে থাকা বর্তমান পিবটি লিখে সেন্ড অপশনে ক্লিক করুন।
৫. এখন আপনাকে সদ্য তৈরি আনকিউ ৫ ডিজিটের পিন প্রদান করুন।
৬. পুনরায় সদ্য তৈরিকৃত পিনটি প্রদান করুন।
৭. উপরোক্ত টিপস্ ফলো করলে সফলভাবে পিন পরিবর্তন করা হয়েছ।

সিম হারিয়ে ফেললে বিকাশ পিন রিসেট

আপনারা যারা মোবাইল ফোন হারিয়ে খুবেই চিন্তিত। ভাবছেন আমার বিকাশ একাউন্ট সহ চলে গেলো মনে হয় এটা ভুল ধারণা। তবে না জানলে এরকম ধারনা আসতেই পারে। সঠিকটা কি তা জানতে হলে একটু ধর্য নিয়ে পড়ুন।

মোবাইল ফোন হারিয়ে যাওয়া অস্বাভাবিকের কিছু না হারিয়ে যেতেই পারে। নিকটস্থ কোনো সিম বিক্রিতার কাছে আপনার হারানো সিমটি রিপ্লেস করে নিন। তবে অসুবিধা হচ্ছে উত্তোলন কৃত সিমটি ২৪ ঘন্টার মধ্যে বিকাশ কিংবা অন্যন্য মোবাইল ব্যাংকিং সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সিম হারিয়ে ফেললে বিকাশ হেল্পলাইন নম্বরে 16247 কল করে বিকাশ কতৃপক্ষকে বিষয়টি জানিয়ে দিন। সিম বিষয়ে কোনো তথ্য জানতে চাইলে তা বলে দিন। বিকাশ পিন রিসেট করার নিয়ম

Leave a Comment